৬ টি ভুল কাজ যা আমরা প্রতিনিয়ত করে আসছি

আমাদের দৈনন্দিনের কাজগুলো অনেকটাই অগোছালো। প্রতিদিন আমরা অনেক ছোট ছোট কাজ করে যাচ্ছি – কিন্তু জানি না আসলে সঠিক কিনা ভুল! আজকে ভালোমন এর পক্ষ থেকে এমন কিছু প্রাত্যহিক কাজের কথা উল্লেখ করবো যা আসলে আমরা ভুল ভাবে করে আসছি।

গোসলের সময় অতিরিক্ত সাবান ব্যবহার করা

বয়সের সাথে সাথে আমাদের শরীরের চামড়া শুষ্ক হতে থাকে, এবং অতিরিক্ত সাবান ব্যবহারের ফলে চামড়া আরো শুষ্ক হয়ে যায় যা শরীরের জন্য অত্তান্ত ক্ষতিকর। প্রয়োজনের অতিরিক্ত সাবান ব্যবহার করবেন না এবং শুধুমাত্র শরীরের ভাঁজ গুলোতে সাবান ব্যবহার করুন। মনে রাখবেন, শরীর গড়িয়ে সাবান পানি পড়াই শরীর পরিষ্কারের জন্য যথেষ্ট।

পরিকল্পনা ছাড়া কাজ করা

আমাদের প্রতেককেরই এমন কিছু সময় আছে যখন আমরা কাজ করতে পছন্দ করি। সাধারণতো এই সময়ে আমরা খুব মনোযোগের সাথে কাজ করি এবং অনেক ভালো ফলাফল অর্জন করতে পারি। সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো আমরা আসলে এই সময়গুলো খুঁজে বের করি না এবং এর সুবিধা থেকে বঞ্চিত হই।

যদি মনে হয় সকাল ১১ টা থেকে ১ টা পর্যন্ত মনোযোগের সাথে কাজ করছি এবং ভালো ফলাফল পাচ্ছি তাহলে ১২ টার দিকে বিশ্রাম নেওয়াটা কি ঠিক! কর্মবিরতি পরিকল্পনা করে কাজ করা উচিত সবারই।

টিস্যু দিয়ে ভেজা হাত শুকানো

কখনো কি ভেবে দেখেছেন বাথরুমে আমরা কি পরিমান কাগজের টিস্যু ব্যবহার করছি শুধুমাত্র ভেজা হাত শুকানোর জন্য? সত্যি বলতে কি এর পরিমানটা অনেক অনেক বেশি। শুধুমাত্র হাতটা একটু ঝেড়ে নিয়ে টিস্যু ব্যবহার করলে আপনি কিন্তু খুব সহজেই অনেক খরচ বাঁচাতে পারেন। ব্যাপারটা যদিও সামান্য, কিন্তু এতে আপনিই উপকৃত হবেন।

বুক ভরে নিঃশ্বাস নেওয়া

বুকভরা নিঃশ্বাস না নিয়ে ফুসফুসের মাধ্যমে নিঃশ্বাস নিতে চেষ্টা করুন। যথাযথ অক্সিজেনেশন আপনার স্নায়ুতন্ত্রের উপর ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে, রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করবে, শরীরের জ্বালা যন্ত্রনা কমাতে সহায়তা করবে, সামগ্রিক শারীরিক স্বাস্থ্যের উন্নতি সাধন করবে এবং মানসিক চাপ থেকে মুক্ত রাখবে।

আপনি যদি সঠিকভাবে শ্বাস নিতে শিখেন, এটি আপনার আবেগ পৰিচালনা করতে সহায়তা করবে। শ্বাস নেয়ার সময় চেষ্টা করবে বুক যাতে না নড়ে।

শুধুমাত্র সোজাসুজি ভাবে দাঁত মাজা

শুধুমাত্র সোজাসোজি ভাবে দাঁত মাজা এবং নিয়মিত দাঁতের ফাঁক পরিষ্কার না করা আমাদের প্রাত্যহিক জীবনের একটি মারাত্মক ভুল। দাঁত পরিষ্কার করার সময় অবশ্যই উপরনিচ করে (দাঁতের মাড়ি থেকে আগা পর্যন্ত) দাঁত মাজার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। এর অর্থ এই না যে সোজাসুজি ভাবে দাঁত মাজা যাবে না।

আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার – “সঠিক ভাবে দাঁত মাজার জন্য ২ থেকে ৩ মিনিটই যথেষ্ট।” কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত আমাদের অধিকাংশেরই এই সহজ নিয়মটি জানা নেই।

প্রস্তুতি ছাড়া ব্যায়াম শুরু করা

মনে রাখবেন: হালকা অনুশীলন (গা গরম) ও যথাযত বিরতি ছাড়া কঠোর ব্যায়াম করা শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।

ব্যায়ামের মধ্যে হালকা অনুশীলন ও ছোট ছোট পরিশ্রম গুলো করতে ভুলবেন না। আর অবশ্যই ব্যায়াম এর শেষে শরীরের ভাঁজগুলো প্রসারিত (স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ) করার ব্যায়ামগুলো করবেন।

আপনার মতামত...

2018-06-04T06:39:26+00:00
ভালোমন