ঘর পরিষ্কার রাখার ১০ টি চমৎকার উপায়

যদিও ঘর পরিষ্কার করাটা সহজ কাজ না, কিন্ত সেটা নির্ভর করছে আপনি ঠিক কিভাবে চেষ্টা করছেন। সফল চেষ্টার পর পরিষ্কার ঝকঝকে ঘরটি দেখার পর আপনার মনের অনুভূতি ভুলা অসম্ভব

আমরা আপনাদের সামনে তুলে ধরছি কয়েকটি মজার উপায় যা আপনার ঘরকে পরিষ্কার ঝকঝকে করে তুলতে সহায়তা করবে।

পুরোনো টেবিল পরিষ্কার

আধা কাপ ভিনেগার এবং আধা কাপ অলিভ অয়েল (জলপাই তেল) মিস্ক করে পরিষ্কার কাপড় দিয়ে টেবিল টি ভাল করে ঘষুন।  দাগ উঠে যাবে এবং টেবিল অনেক মসৃণ হবে।

ধবধবে পরিষ্কার বালিশ

এক কাপ ওয়াশিং পাউডার, এক কাপ ডিস-ওয়াশিং পাউডার, এক কাপ কাপড় সাদা করার পাউডার (হুইটেনার) এবং আধা কাপ বোরাক্স পাউডার এর সাথে গরম পানি মিক্স করে পরিষ্কার করুন।

দরজার হাতলের দাগ পরিষ্কার

এক চামচ ভেজিটেবল অয়েল এবং ২ চামচ বেকিং পাউডার মিস্ক করে ব্রাশ অথবা কাপড় দিয়ে ভাল করে ঘষুন।

পানির কল পরিষ্কার

পানির কলের মুখ পরিষ্কার এর জন্য কলটি ভিনেগার এর মধ্যে ২০ মিনিট ভিজিয়ে রেখে পরিষ্কার করুন।

যদি ময়লা অনেক ভিতরে থাকে, তাহলে একটি ব্যাগ দিয়ে মোড়িয়ে আরও ১ ঘণ্টা ভিনেগার এর মধ্যে ভিজিয়ে রাখুন এবং পরিষ্কার করুন।

ইস্তিরি (আয়রন) মেশিন পরিষ্কার

একটি কাগজের মধ্যে কিছুটা লবন ছিটিয়ে আয়রন মেশিনটি রাখুন। এবার মেশিনটি চালু করে সর্বোচ্চ হিট সেট করুন এবং লবণের মধ্যে ঘষুন। ঘষার সময় পানি স্প্রে (যদি থাকে) বন্ধ রাখতে ভুলবেন না। দেখবেন খুব সহজেই ময়লা উঠে আসবে।

ঢালাই লোহার কড়াই পরিষ্কার

এই কাজটি আপনাকে অনেক ধৈর্য সহকারে করতে হবে। প্রথমে ওভেন ক্লিনার নিয়ে কড়াইটিতে ভালো করে মাখুন এবং ২ দিন ফেলে রাখুন। ওভেন ক্লিনার ব্যাবহার করার সময় হাতমোজা ব্যাবহার করতে ভুলবেন না, নতুবা হাতে ফোস্কা পরে যাবে যেহেতু এটা একটা কেমিক্যাল। ২ দিন পর দেখবেন লোহার ময়লার বাড়তি আবরণ টি অনেক নরম হয়ে যাবে। এরপর ভিনেগার এর মধ্যে ৩০ থেকে ৪০ মিনিট ভিজিয়ে রেখে গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

গোসলখানা পরিষ্কার

প্রথমে কিছু উলের তুলো নিয়ে ঠিক ১ সেন্টিমিটার আকারের ছোট ছোট বল বানান। এরপর বলগুলো কাপড় সাদা করার পাউডার (হুইটেনার) এর মধ্যে চুবিয়ে নিয়ে দাগ ওয়ালা জায়গা গুলোর উপর সারা রাত ফেলে রাখুন। সকাল বেলা টুথব্রাশ দিয়ে ঘষে পরিষ্কার করে ফেলুন।

রান্নার চুলা পরিষ্কার

চুলোর লোহার অংশ থেকে তেল পরিষ্কার করার জন্য এমোনিয়া ক্লিনার ব্যাবহার করতে পারেন। একটি প্লাস্টিক ব্যাগ এর মধ্যে চুলোর অংশটি নিয়ে ২ থেকে ৩ টেবিল চামচ এমোনিয়া ক্লিনার ছিটিয়ে ১২ ঘন্টার জন্য ফেলে রাখুন। এরপর পরিষ্কার করুন।

চামচের জং পরিষ্কার

গরম পানি, এলুমিনিয়াম কাগজ এবং লবন দিয়ে খুব সহজে জং পরিষ্কার করা যায়। প্রথমে একটি বড় বাসন নিয়ে এলুমিনিয়াম কাগজ দিয়ে মোড়ান। এরপর গরম পানি এবং লবন মিশিয়ে চামচ গুলো ৩০ মিনিটের জন্য ভিজিয়ে রাখুন। দেখবেন পরিষ্কার হয়ে যাবে।

সোফা পরিষ্কার

আপনি ইচ্ছা করলেই সোফা থেকে ময়লা দাগ দূর করতে পারেন। একটি পরিষ্কার সাদা ব্রাশ নিয়ে অল্প পরিমান স্পিরিট মিশিয়ে পরিষ্কার করুন। অস্বস্তিকর গন্ধ দূর করার জন্য কিছুটা বেকিং পাউডার মিশিয়ে নিতে পারেন।

আপনার মতামত...

2018-06-04T06:39:43+00:00
ভালোমন